বিবাহিত জীবনে সুখী হওয়ার উপায়

বিবাহিত জীবনে স্বামী স্ত্রীর সম্পর্ক টি অত্যন্ত সুন্দর এবং মধুর একটি সম্পর্ক। বিবাহিত জীবনে সুখী হওয়ার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো একে অন্যের প্রতি শ্রদ্ধা,বিশ্বাস ও ভালোবাসা।একে অপরকে এই বৈধ সম্পর্কটি সুখের করতে হলে অবশ্যই বেশ কিছু দিকে খেয়াল রাখতে হবে।


অনেকেই আন্তরিকতার অভাবে বা বিভিন্ন কারণে এত সুন্দর হালাল সম্পর্কটিতে টিকে থাকতে পারে না। তাই বিবাহিত জীবনে সুখী হওয়ার উপায় সম্পর্কে জানতে হবে।এই ব্যর্থতার অবশ্যই উল্লেখযোগ্য কিছু কারণ রয়েছে। বিবাহিত জীবনে সুখী হওয়ার উপায় সম্পর্কে হয়তো অনেকেই অজানা।


প্রিয় পাঠকগণ,আজ আমরা এ বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করব যে বিবাহিত জীবনে সুখী হওয়ার উপায় কি।
আজকের আলোচনার বিষয়বস্ত নিচে তুলে ধরা হলো-

পেজ সূচিপত্রঃ

বিবাহিত জীবনে সুখী হওয়ার উপায় সম্পর্কে জানার আগে আমরা আলোচনা করব বিবাহিত জীবনের সমস্যা নিয়ে।যেকোনো সম্পর্কে সমস্যা থাকাটা অস্বাভাবিক কিছুই নয়। বিবাহিত জীবন ও এর ব্যতিক্রম নয়। আজ আমরা বর্তমানে আলোচিত বিবাহিত জীবনের সমস্যা নিয়ে আপনাদের জানাতে চলেছি।সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়তে থাকুন।
  1. একে অপরকে সময় না দেয়াঃ বিবাহিত জীবনের অন্যতম একটি সমস্যা হলো একে অপরকে সময় না দেয়া। যার ফলে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ধীরে ধীরে দূরত্ব বাড়তে থাকে। এখান থেকেই সমস্যা সৃষ্টি হয়ে থাকে।
  2. আর্থিক সমস্যাঃ এখনকার মেয়েরা বিলাসিতায় অভ্যস্ত।আর সংসারে উপার্জন করে থাকে ছেলে মানুষ। স্ত্রীর অধিক চাহিদা মেটাতে না পারলে শুরু হয় সমস্যা। মেয়েদের উচিত স্বামীর আয় বুঝে ব্যয় করা যা বেশিরভাগ নারীরাই মেনে নিতে পারে না।
  3. বিশ্বাস এবং মূল্যবোধের অভাবঃ বিবাহিত জীবনের অন্যতম একটি সমস্যা হল বিশ্বাস এবং মূল্যবোধের অভাব।যেটি ছাড়া কোন সম্পর্কেই ভালো থাকা যায় না। মূল্যবোধ ও বিশ্বাস না থাকায় অশান্তি জন্ম নেয়।
  4. যৌন সমস্যাঃ স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক আত্মিক এবং শারীরিক,মানসিক উভয় মিলিয়ে।বেশিরভাগ দেখা যায় স্বামী স্ত্রীর ডিভোর্স হয়ে যায়।যার কারণ অপ্রকাশিত থেকে যায়।মূলে থাকে যৌন সমস্যা। এটিও বিবাহিত জীবনের অন্যতম সমস্যার মধ্যে পড়ে।
  5. পরকীয়ায় লিপ্তঃ বিবাহিত জীবনের সমস্যার মধ্যে সবচেয়ে আলোচিত বিষয় যেটি সেটি হল পরকীয়া। সবচেয়ে বেশি ডিভোর্স বর্তমানে পরকীয়া লিপ্তর কারণে হচ্ছে।
  6. তুলনা করাঃ স্বামী স্ত্রী একটি ভুল করে থাকে তা হল অনেকেই অন্যের স্বামী বা স্ত্রী নিয়ে তুলনা দিয়ে থাকে। সংসার জীবন কোন প্রতিযোগিতা নয় যে অন্যের সঙ্গে তুলনা দিয়ে চলতে হবে। আর এটি মেনে নিতে সবাই পারেনা।
  7. পছন্দের অমিলঃ প্রতিটি মানুষ আলাদা আলাদা ব্যক্তিসত্তা নিয়ে তৈরি। তাই প্রতিটি মানুষের পছন্দ একই হবে এটি সম্ভব নয়। স্বামী স্ত্রীর মধ্যে পছন্দের অমিল এটিও একটি বিরাট সমস্যা। 
উল্লেখিত কারণগুলো ছাড়াও আরো অনেক কারণ রয়েছে যা বিবাহিত জীবনে অনেক অশান্তির সৃষ্টি করে থাকে। তবে উপরোক্ত কারণগুলো বর্তমানে বেশি পরিলক্ষিত। এই সকল সমস্যা গুলোকে এড়িয়ে চলে আমাদের বিবাহিত জীবনে সুখী হওয়ার উপায় বের করতে হবে।

সুখী হওয়ার দশটি উপায়

পৃথিবীতে প্রতিটি মানুষ সুখী হতে চায়। সুখে থাকতে চায় না এমন কোন ব্যক্তিকে খুঁজে পাওয়া হয়তো সম্ভব নয়। সুখে থাকার জন্য যেকোন ব্যক্তিকে কিছু উপায় অবলম্বন করা উচিত। কারণ সুখী হওয়া নির্ভর করে একান্তই নিজের উপরে।

চলুন তাহলে আজ সুখী হওয়ার দশটি উপায় সম্পর্কে জেনে আসি।
  1. নিজেকে ভালোবাসাঃ নিজেকে ভালোবাসা হলো সুখী হওয়ার সর্বপ্রথম শর্ত। একান্তে নিজেকে সময় দিন, যে কাজগুলো করতে ভালো লাগে সেগুলো করুন। মনের মধ্যে এক অন্যরকম ভালো লাগা কাজ করবে।
  2. সঠিক ব্যক্তি নির্ণয়ঃ জীবনে চলার পথে সঠিক ব্যক্তি নির্ণয় করা জরুরী।কারণ,আমাদের পরিচিত এবং কাছের মানুষেরাই আমাদের সুখী হওয়ার পথে বাধা সৃষ্টি করে। তাই এ বিষয়ে সতর্ক থাকা উচিত।
  3. আত্মবিশ্বাস রাখাঃ জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে নিজের প্রতি বিশ্বাস বজায় রাখুন। প্রতিটি পরিস্থিতিতেই আপনি জয়ী হবেন। আত্মবিশ্বাস মানুষকে অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে।
  4. দুশ্চিন্তা না করাঃ মানুষের জীবনে ভালো ও খারাপ দুটো পরিস্থিতি বিদ্যমান। তাই, যেকোনো কিছুই ঘটে যাক না কেন অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা করবেন না।ফলে অশান্তি বেড়েই চলবে।তাই দুশ্চিন্তাকে এড়িয়ে চলুন।
  5. অতীত ভুলে যানঃ অতীতে আপনার সাথে এমন কোন কিছু হয়তো ঘটেছে যার ফলে আপনি ভালো থাকতে পারছেন না।তাহলে আজই মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলুন।কারণ অতীতকে মনে রাখলে আপনি বর্তমানে সুখী হতে পারবেন না।
  6. নিজের লক্ষ্যকে নির্ধারণ করুনঃ প্রতিটি মানুষের উচিত নিজের জন্য কিছু পরিকল্পনা করা। কারণ পরিকল্পনা বিহীন জীবন কখনো সুখের হতে পারেনা। তাই লক্ষ্য স্থির করুন দেখবেন সুখ হাতে ধরা দিবেই।
  7. ইতিবাচক চিন্তা ঃ প্রতিটি ক্ষেত্রেই যাই হোক নেতিবাচক চিন্তা করবেন না। এটি দুশ্চিন্তার বৃদ্ধি করে আপনার মানসিক সুখ কেড়ে নিবে। তাই সর্বদাই সকল ক্ষেত্রে ইতিবাচক চিন্তা রাখুন।
  8. কৃতজ্ঞ থাকুনঃ জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রেই মহান আল্লাহর  নিকট কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করুন। কারণ, আপনার চেয়েও খারাপ অবস্থায় কেউ থাকতে পারে।সর্বদাই মনে রাখুন,মহান আল্লাহ উত্তম পরিকল্পনাকারী। যা কিছুই আমাদের জন্য কল্যাণকর সেটি আমরা পেয়ে থাকি।
  9. অন্যের সঙ্গে তুলনা না করাঃ কোন অবস্থাতেই নিজেকে অন্যের সঙ্গে তুলনা করবেন না। কারণ, এটি আপনার সুখে থাকার পথে ব্যাপকভাবে বিঘ্ন ঘটাবে।এ বিষয়টিকে সম্পূর্ণভাবে এড়িয়ে চলুন।
  10. সহযোগী মনোভাবঃ সব সময় অন্যের প্রতি সহযোগী মনোভাব বজায় রাখুন।সহানুভূতিশীল হবার চেষ্টা করুন। এটি আপনার ভালো থাকার একটি কারণ হয় দাঁড়াতে পারে। 
উপরে উল্লেখিত উপায়গুলো অবলম্বন করে যে কোন মানুষের সুখে থাকা সম্ভব এবং এগুলো বিবাহিত জীবনে সুখী হওয়ার উপায় হিসেবেও অবলম্বন করা যেতে পারে। নিজের প্রচেষ্টা ছাড়া কখনো সুখী হওয়া সম্ভব নয়। কারণ,আপনার সুখে থাকার ক্ষমতা শুধুমাত্র আপনার নিজের মধ্যেই বিদ্যমান।

বিবাহিত জীবনে সুখী হওয়ার দোয়া 

ইসলাম হলো একটি পূর্ণাঙ্গ জীবন ব্যবস্থা। এমন কোন বিষয় নয় যেটি আল কুরআনে বর্ণনা করা হয়নি। আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম যুবকদের জন্য বলে গিয়েছেন যে-চারিত্রিক পবিত্রতা অর্জন এবংস্বভাবগত পরিছন্নতার বজায় রাখার উদ্দেশ্যে তোমরা বিয়ে করো।


যে ব্যক্তি বিয়ে করতে সক্ষম সে যেন বিয়ে করে। অন্যথায়, যে ব্যক্তি অক্ষম সে যেন রোজা রাখে। এর উদ্দেশ্য হলো মানুষের যৌন চাহিদা রোজা রাখার মাধ্যমে অবদমিত থাকে। এছাড়াও তিনি পবিত্র বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ দম্পতিদের জন্য সর্বদাই দোয়া রাখতেন।

পবিত্র কুরআনে বিবাহিত জীবনের সুখী হওয়ার দোয়া উল্লেখ রয়েছে। নিচে দোয়াটি উল্লেখ করা হলো-

উচ্চারণঃ রাব্বানা হাবলানা মিন আজওয়াজিনা ওজুররিওইয়া তিন কুররতা আঃ ইউন ওজা আলনা লিল মুত্তাকিন ইমামা।

অর্থঃ হে আমাদের রব! আমাদেরকে এমন স্ত্রী ও সন্তান সন্তদের দান করুন যারা নয়ন প্রতিকর হয়। আর আমাদের মুত্তাকীনদের জন্য আদর্শবান করুন।

বিবাহিত জীবনে সুখী হওয়ার উপায় হিসেবে আমরা ধর্ম অনুসরণ করে এই দোয়াটি সবসময় পাঠ করব। ইনশাল্লাহ বিবাহিত জীবন সুখের হবে।

বন্ধুর বিয়ের স্ট্যাটাস

বন্ধুর বিয়ে মানে অন্যরকম এক আনন্দ। বন্ধুর বিয়েতে অবশ্যই আপনি তাকে সুন্দর একটি স্ট্যাটাসের মাধ্যমে শুভেচ্ছা জানাতে চান।আজ আমরা আপনাদের জন্য এমন কিছু বন্ধুর বিয়ের স্ট্যাটাস নিয়ে এসেছি। আপনারা চাইলে সংগ্রহ করতে পারেন।

  • বিবাহের মতো এত সুন্দর সম্পর্কে আবদ্ধ হতে যাচ্ছ। দোয়া এবং শুভকামনা রইল তোমাদের জন্য। তোমাদের জীবন হোক ভালোবাসাপূর্ণ।
  • আজ তোর জীবনে সবচেয়ে বড় খুশির দিন। আজ তোর বিয়ে। ভাবতেই পারছি না তোর বিয়ে হয়ে গেল। দোয়া রইল সুখে থাক সারা জীবন।
  • বলেছিলে কখনো বিয়ে করব না। শেষ পর্যন্ত বিয়েটা করেই ফেললি।আমার সবচেয়ে কাছের বন্ধুর আজ বিয়ে।দোয়া রইল দুজনের জন্য।
  • পবিত্র বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে যাচ্ছ।পবিত্র এ বন্ধনে আল্লাহ তোমাদেরকে সারা জীবন সুখে শান্তিতে রাখুক।
  • বিয়ে খুব সুন্দর একটি সম্পর্ক। দুটি আত্মার মিলন।এই পবিত্র সম্পর্কে সুখে-দুখে প্রতিটি সময় দুজন দুজনের পাশে থাকবে, ভালো থাকবে এই কামনা করি বন্ধু।

বিয়ে নিয়ে উক্তি

বিয়ে হল একটি সুন্দর এবং সামাজিক সম্পর্ক। এ সম্পর্কটি নিয়ে অনেকেই বিভিন্ন উক্তি করেছেন। আজ আমরা বিয়ে নিয়ে উক্তি সম্পর্কে জানব যা বিশিষ্ট ব্যক্তিগণ মন্তব্য করেছেন।
  1. একটি সফল বিবাহের জন্য একজন ব্যক্তির সঙ্গে অনেকবার প্রেমে পড়া উচিত-মিগনন মিকলাথলিন।
  2. একজন ভালো স্ত্রী তৈরি করতে পারে শুধুমাত্র একজন ভালো স্বামী-জন ফ্লোরিও।
  3. প্রত্যেকেই বিয়ে করতে চায়। কিন্তু,সারা জীবন আপনি যাকে বিরক্ত করবেন সেই ব্যক্তিকে খুঁজে পাওয়া খুবই কঠিন কাজ-রিতা রুডনার।
  4. একটি সুখী বিবাহিত জীবন একজন স্বামীকে প্রাকৃতিক দৃশ্য প্রদান করে থাকে আর স্ত্রী হয়ে থাকে জলবায়ু-জেরালড ব্রেনান।
  5. বিয়ের পরে অর্ধেক চোখ বন্ধ রাখুন,তবে বিয়ের আগে চোখ খোলা রাখুন-বেঞ্জামিন ফ্রাঙ্কলিন।
  6. যদি আপনার মনে হয় আপনি একজনের প্রশংসার জন্য অসংখ্য মানুষকে বিসর্জন দিতে পারেন তাহলে অবশ্যই বিয়ে করুন-ক্যাথরিন হেপবার্ন।
  7. আপনি জীবনে সুখী হয়ে উঠবেন,যদি একজন ভালো স্ত্রী লাভ করতে পারেন। আর যদি বিপরীত হয় অর্থাৎ, ভালো স্ত্রী না পেয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই একজন দার্শনিক হতে পারবেন-সক্রেটিস।
  8. বিবাহ হলো এমন একটি ইমারত যাকে প্রতিনিয়ত পুনঃনির্মাণ করা উচিত-আন্দ্রে মরুইস।

সুখে থাকার মূলমন্ত্র কি?

আমরা প্রতিনিয়তই কিভাবে ভালো থাকবো সুখে থাকবো এর উপায় খুঁজতে থাকি। ভাবতে থাকি সুখে থাকার মূলমন্ত্র কি? আসলেই কি এর কোন মূল মন্ত্র রয়েছে? চলুন তাহলে এ বিষয়ে জানতে আপনাদের একটু সহযোগিতা করি।
  • কোন মানুষের পক্ষেই প্রতিটি মানুষের কাছে ভালো হয়ে থাকা সম্ভব নয়। তাই অযথা এই চেষ্টা করতে যাবেন না।
  • স্বার্থ ছাড়া পৃথিবীতে কোন সম্পর্ক তৈরি হয় না। তাই অন্যের প্রতি কম আশা রাখবেন,নয়তো নিজেই কষ্ট পাবেন ।
  • আত্মসন্তুষ্টি বজায় রাখুন। প্রতিটি ক্ষেত্রে কৃতজ্ঞতা স্বীকার করুন।
  • পিছনে মানুষ অনেক কথাই বলতে পারে এ বিষয়গুলোকে এগিয়ে চলুন।
  • জীবনে ঘটে যাওয়া খারাপ ঘটনা গুলো মনে রাখবেন না কারণ ভাগ্যে যা থাকে অবশ্যই তাই ঘটবে। আপনি চাইলেও তা ঠেকাতে পারবেন না।
সত্যি যদি এমন কোন মন্ত্র থাকতো যা পড়ে মানুষ সুখী হবে তাহলে পৃথিবীতে কোন মানুষেরই কোন কষ্ট থাকত না। তাই এই ছোট ছোট বিষয়গুলো মাথায় রাখবেন সুখী হবেন।

বিবাহিত জীবনের সুখী হওয়ার উপায়-শেষ কথা

বিবাহিত জীবনের সুখী হওয়ার উপায় শুধু যে এক পক্ষ খুঁজবে তা নয়, কারণ বিয়ে এমন একটি সামাজিক বন্ধন যার দ্বারা শুধু দুজন মানুষই নয়,দুটো পরিবার এক হয়।বিবাহিত জীবনে নানা কারণে বিভিন্ন সমস্যা হতেই পারে। তাই বলে বিচ্ছেদ এর সংশোধন হতে পারে না। সর্বদাই সমঝোতার রাস্তা খুঁজে বের করতে হবে। আর কিছু জিনিসকে ছেড়ে দিবেন বিশ্লেষণ না করে। দুজন দুজনকে প্রতিটি ক্ষেত্রে বোঝার চেষ্টা করবেন তাহলেই বিবাহিত জীবন সুখের হবে।

বিবাহিত জীবনে সুখী হওয়ার উপায় সম্পর্কে আপনাদের সর্বোচ্চ তথ্যটি দেওয়ার চেষ্টা করেছি। আশা করি আপনাদের কাঙ্ক্ষিত উত্তরটি পেয়েছেন। লেখার কোন ভুল হলে ক্ষমা করবেন। ধন্যবাদ।





Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url