বিবাহিত জীবনের সমস্যা

আসসালামু আলাইকুম প্রিয় পাঠক বৃন্দ, আজকে আমরা আলোচনা করব বিবাহিত জীবনের সমস্যা নিয়ে।বিয়ে হলো একটি সামাজিক সম্পর্ক। প্রতিটি মানুষের জীবনে বিশাল একটি পরিবর্তন চলে আসে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার পরে। জীবন যাপনের ধরন, মন মানসিকতায় পরিবর্তন এবং আরো অনেক কিছু বিয়ের সাথে সম্পৃক্ত।

বিয়ে হলো একটি মধুর সম্পর্ক। তবে এই সম্পর্কটিকে বিভিন্ন ধাপে বিভিন্ন রকমের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। এই সম্পর্কটিতে এমন কিছু সমস্যা নিষ্পত্তিহীনভাবে থেকে যায় যার কারণে বিচ্ছেদ ঘটে। অনেকেই বিয়ের অতিরিক্ত দায়িত্বটিকে বোঝা হিসেবে নিয়ে নেয়। যার ফলে সমস্যা মনে হয়। কিন্তু সঠিকভাবে পরিচালনা করলে এ সম্পর্কটি অনেক বেশি সুন্দর।

আজকে আর্টিকেলটিতে বিবাহিত জীবনের সমস্যা সহ কি কারনে এসব সমস্যা হয়ে থাকে এবং সমস্যাগুলো সমাধানের উপায় নিয়ে আলোচনা করব। তাই আলোচনার শেষ পর্যন্ত আমাদের সাথেই থাকুন। চলুন তাহলে আর দেরি না করে আলোচনা শুরু করা যাক বিবাহিত জীবনের সমস্যা নিয়ে বিস্তারিত।

পেজ সূচিপত্রঃ

বিবাহিত জীবনের সমস্যার কারণ কি?

বিবাহিত জীবনের সমস্যা এক কথায় বলে শেষ করা যাবে না। কারণ, বিভিন্ন কারণে বিভিন্ন সময় ভিন্ন ভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। প্রতিটি বিবাহিত দম্পতির জন্য খুবই সাধারণ একটি প্রশ্ন হল বিবাহিত জীবনের সমস্যার কারণে কি? আসুন তাহলে এ প্রশ্নটির উত্তর জেনে নেয়া যাক।
  1. প্রতিটি বিবাহিত দম্পতির জন্য একে অপরের প্রতি মূল্যবোধ থাকা খুবই জরুরী। যখনই মূল্যবোধ কমতে শুরু করে তখনই শুরু হয় অশান্তি। এটি একটি উল্লেখযোগ্য কারণ বিবাহিত জীবনের সমস্যা শুরু হওয়ার।
  2. একে অপরের পছন্দ অপছন্দ, মত বিরোধিতা এর মাধ্যমে সংসারে অশান্তির সৃষ্টি হয়ে থাকে। দুজনের মধ্যে দূরত্ব বাড়তে থাকে।
  3. সঠিক সময় মত সন্তান নেয়ার না গ্রহণ করা।
  4. অন্যের সাথে তুলনা দেয়া। এটি চরমভাবে সম্পর্ক টিকে আঘাত করে।
  5. স্ত্রীর অতিরিক্ত চাহিদা এবং এর সাথে অবশ্যই আর্থিক অবস্থাও জড়িত।
  6. দুজনের বিভিন্ন ব্যস্ততার কারণে একান্তে সময় না কাটানো।
  7. স্বামী বা স্ত্রী যেকোন ধরনের শারীরিক সমস্যা। এটি বর্তমানে খুবই সাধারণ একটি সমস্যা।
  8. অর্থকে অতিরিক্ত প্রাধান্য দেয়া।
  9. একে অন্যকে ছাড় না দেয়া।
  10. ধৈর্যধারণের অভাব।
  11. স্বাধীনভাবে চলতে না পারা।
  12. নৈতিকতা এবং ধর্মীয় শিক্ষার অভাব।
  13. পরকীয়াতে আসক্ততা।
  14. স্বামী-স্ত্রী উভয়ের পরিবারে অনধিকার চর্চা করা।
উপরোক্ত প্রতিটি কারণ হতে পারে বিবাহিত জীবনের সমস্যা গুলোর মধ্যে অন্যতম। কারণ সচরাচর এই সমস্যাগুলোরই সম্মুখীন হয়ে থাকে বিবাহিত দম্পতিরা। তাই এগুলো উল্লেখযোগ্য কারণ বলে বিবেচনা করা যায়। আর যেটি না বললেই নয়, বিবাহিত জীবনে প্রতিটি সমস্যার কারণ কিন্তু আমরা নিজেরাই। কারণ, বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয় স্বামী স্ত্রীর মধ্যে মতবিরোধ এবং ভালোবাসার অভাবে। এছাড়াও অন্য ব্যক্তির জন্য অনেক সময় দেখা যায় নানা ধরনের সমস্যা হয়ে থাকে। তাই স্বামী স্ত্রীর মধ্যে কখনো অন্য ব্যক্তিকে জায়গা না দেওয়াই উত্তম। সমস্যা যেমন নিজেদের হয়ে থাকে সমাধানও নিজেদের মধ্যে রয়েছে।

বিবাহিত জীবনের সমস্যার সমাধান

এতক্ষণ আমরা বিবাহিত জীবনের সমস্যা নিয়ে আলোচনা করেছি। আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন কোন কোন কারণগুলো বিবাহিত জীবনের সমস্যা সৃষ্টি করে থাকে। চলুন তাহলে এখন জেনে নেয়া যাক বিবাহিত জীবনে সমস্যার সমাধান সম্পর্কে। যারা বিভিন্ন ধরনের সাংসারিক অশান্তিতে ভুগছেন তাদের জন্য আমাদের লেখাটি। কারণ ভুক্তভোগীরা প্রায় পাগল হয়ে বিবাহিত জীবনের সমস্যার সমাধান খুঁজে বেড়ায় কথা না বাড়িয়ে জেনে নেয়া যাক।

  • বিয়ের আগে দুজন দুজনের সাথে সমস্যা হতে পারে এমন কোন কিছু থাকলে খোলামেলা আলোচনা করে নেয়া উচিত। যাতে পরবর্তীতে কোন ধরনের সমস্যায় না পড়তে হয়।
  • ক্যারিয়ার সচেতন যারা তারা অবশ্যই এর আগে কথা বলে নিতে পারেন। কারণ পরবর্তীতে কোন ধরনের বাধা আসলে সেটি বিপদজনক পর্যায়ে চলে যাবে।
  • বিয়ের পরে নতুন অবস্থায় যেহেতু একটু সময় নিয়ে দুজন দুজনকে বোঝার চেষ্টা করুন।
  • কোন ধরনের সমস্যা মনে হলে দুজনে পরামর্শ করুন এবং সমাধানের চেষ্টা করুন।
  • স্বামী-স্ত্রী যে কারো শারীরিক ত্রুটি থাকলে বিষয়টি নিয়ে ডাক্তারের পরামর্শ নিন। কারণ এই সম্পর্কটিতে শারীরিক সক্ষমতা খুবই জরুরী এবং গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।
  • একজন আরেকজনকে মূল্যায়ন করুন।
  • দুজন দুজনের পছন্দকে প্রাধান্য দিন।
  • স্ত্রীর উচিত তার প্রতিটি চাহিদা সীমিত রাখা অর্থাৎ স্বামীর আয়ের অতিরিক্তে না যাওয়া।
  • স্বামী-স্ত্রী দুজনেই কারো অপছন্দের কাজগুলো থেকে বিরত থাকা।
  • অন্যের সাথে তুলনা না দেয়া।
  • ধর্মীয় মূল্যবোধ মেনে চলে এবং নৈতিকতাকে সামনে রেখে সংসার করা।
  • তৃতীয় কোন ব্যক্তির কথায় সংসার পরিচালনা না করা।
  • বিশ্বাসের অমর্যাদা না করা।
  • সময় এবং সুযোগ বুঝে দুজনের সিদ্ধান্ত নিয়ে সন্তান পরিকল্পনা করা।
  • দুজন দুজনের পরিবারের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়া।
বিবাহিত জীবনের সমস্যা দূর করার জন্য উপরের উল্লেখিত পরামর্শগুলো মেনে চললেই আর কোন সমস্যা হবে না আশা করা যায়। আর্থিক অসঙ্গতি থেকে শুরু করে শারীরিক এবং মানসিক বিভিন্নভাবে সংসার জীবনে চাপ এসে থাকে। তবে, একটু ধৈর্যশীল হয়ে সবকিছু বিবেচনা করে যখন স্বামী-স্ত্রী আলোচনার মাধ্যমে একসাথে পরামর্শ নেয় তখন সমস্যাগুলো সমাধান করতে অনেক সহজ হয়ে যায়। তাই স্বামী স্ত্রীকে হতে হবে একে অন্যের পরিপূরক। যেকোনো সমস্যা থাকলে তার সমাধান রয়েছে। তাই বর্ণিত পরামর্শ গুলো মেনে চলার চেষ্টা করা উচিত প্রতিটি বিবাহিত দম্পতিকে।

বিবাহিত জীবনের সমস্যা-শেষ কথা

বিবাহিত জীবনের সমস্যা আলোচনায় আমরা সমস্যা এবং সমাধান দুটোই পেলাম। বিয়ে হলো একটি অনেক বড় দায়িত্ব। সততা এবং বিশ্বস্ততার সাথে সারাজীবন এই দায়িত্ব পালন করতে হয়। নানা ধরনের সমস্যায় পড়তে হয়। তারপরও বিবাহিত জীবন খুব সুন্দর।
বিবাহিত জীবনের সমস্যা নিয়ে আলোচিত আমাদের লেখাটি আপনাদের কেমন লেগেছে কমেন্টে জানাবেন। ভাল লাগলে অন্যদের সাথে শেয়ার করবেন। আপনাদের বিবাহিত জীবন সুখের শান্তির এবং মধুর হোক এই কামনা করে লেখাটি এখানেই শেষ করছি। আবার কোন বিষয় নিয়ে আলোচনায় কথা হবে ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন। লেখায় কোন ভুল হলে ক্ষমা করে দিবেন। ধন্যবাদ।


Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url